গার্মেন্টকর্মীর শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে লম্পট নুর ইসলাম

গার্মেন্টকর্মীর শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে লম্পট নুর ইসলাম

এস.এম দেলোয়ার : কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় মাহিনুর (৩৫) নামে এক গার্মেন্টকর্মীর শরীরে জ্বালানী তেল ঢেলে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে নুর ইসলাম নামের এক লম্পট।

এ সময় স্থানীয় লোকজন এগিয়ে আসলে ওই লম্পট দ্রুত পালিয়ে যায়। পরে শরীরে পানি ঢেলে আগুন নিভিয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় মাহিনুরকে দ্রুত ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে নিয়ে যায় স্থানীয় লোকজন।

রোববার (২২ মার্চ) রাত সাড়ে ৮ টারদিকে ফতুল্লা পাইলট স্কুল সংলগ্ন আলী আহম্মদের বাড়ির গলিতে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনাস্থলে যাওয়া ফতুল্লা মডেল থানার এএসআই তারেক আজিজ প্রত্যক্ষদর্শীদের বরাত দিয়ে জানান, নুর ইসলাম পেশায় একজন ড্রাইভার। সে নারায়ণগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মীর সোহেল আলীর ব্যক্তিগত গাড়িচালক। ঘটনার পর থেকে তিনি পলাতক রয়েছেল।

গার্মেন্টকর্মীর শরীরে আগুন ধরিয়ে দিয়েছে লম্পট নুর ইসলাম

সে তার দুর সম্পর্কের শ্যালিকা গার্মেন্টকর্মী মাহিনুরকে দীর্ঘদিন যাবত কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছে। এরমধ্যে মাহিনুরকে নূর ইসলামের স্ত্রী হাসিনা বেগম মারধরসহ এলাকা ছাড়ার হুমকি দেয়। এনিয়ে ভয়ে মাহিনুর তার পরিবারের লোকজনদের বিষয়টি জানান এবং থানায় অভিযোগ করার সিদ্ধান্ত নেয়।

বিষয়টি জানতে পেরে রোববার রাত সাড়ে ৮টার দিকে গার্মেন্ট থেকে বাসায় ফেরার পথে বাড়িওয়ালা আলী আহম্মদের ফতুল্লা পাইলট স্কুল সংলগ্ন এলাকার বাড়ির কাছে গলিতে মাহিনুরের পথরোধ করে নুর ইসলাম। এসময় বোতল থেকে জ্বালানী তেল মাহিনুরের মাথায় ও শরীরে ঢেলে দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেয়। তখন আগুন আর চিৎকার শুনে আশপাশের লোকজন ছুটে আসলে নুর ইসলাম পালিয়ে যায়। এরপর স্থানীয় লোকজন পানি ঢেলে আগুন নিভিয়ে আশঙ্কাজনক অবস্থায় মাহিনুরকে হাসপাতালে নিয়ে যায়।

তিনি আরো জানান, নুর ইসলাম ফতুল্লা রেলস্টেশন ব্যাংক কলোনি এলাকায় মুন্না ডাক্তারের বাড়িতে ভাড়াটিয়া হিসেবে বসবাস করেন। আর আহত মাহিনুরের গ্রামের বাড়ি বরগুনা জেলার আমতলী থানা এলাকায়।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment