ত্রাণ বিতরণে আলাউদ্দিনের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারীতার অভিযোগ

নারায়ণগঞ্জ নিউজ ২৪ ডট কম: ঘরে খাবার নেই আর তাই ত্রানের আশায় ছুটে গিয়েছিলেন কুতুবপুর ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডের মেম্বার ও আওয়ামীলীগ নেতা আলাউদ্দিন হাওলাদারের ব্যাক্তিগত কার্যালয়ে।কিন্তু ত্রানের পরিবর্তে গলা ধাক্কা খেয়ে ফিরে আসতে হয়েছে খালি হাতে।

কুতুবপুর ইউনিয়নের ৬ নং ওয়ার্ডের অধিবাসী হালেমা খাতুন (৬৫) জানান রবিবার সন্ধ্যায় সে সহ একই ওয়ার্ডের দরিদ্র পরিবারের বেশ কয়েকজন মহিলা ত্রান চাইতে যান কুতুবপুর মুসলিম পাড়াস্থ আলাউদ্দিন হাওলাদারের বাস ভবনের নীচ তলায় তার ব্যাক্তিগত কার্যালয়ে।সেখানে সে সহ তার সাথে থাকা সকলেই ত্রানের কথা বললে আলাউদ্দিন হাওলাদার উত্তেজিত হয়ে তাদেরকে গালমন্দ সহ তার সাথে থাকা একাধিক জনকে গলা ধাক্কা দিয়ে বের করে দেন।

অপর একজন জানান,গত কয়েকদিন ধরে তার বাসায় কোনো খাবার নেই।তাছাড়া সরকারী ভাবে কোনো ত্রান ও তারা পাননি।আর তাই আজ মেম্বারের কার্যালয়ে এসেছিলেন ত্রান পাবার আশায় কিন্তু ত্রানতো মিললোই না উল্টো গালমন্দ করে তাড়িয়ে দিলো।

ত্রান দেবার ক্ষেত্রে স্বেচ্ছাচারীতার অভিযোগ এনে তিনি বলেন,আলাউদ্দিন হাওলাদার তাদের সামনেই তার পরিচিত অনেককেই ত্রান দিয়েছেন।মুখ চিনে চিনে তিনি ত্রান দিয়েছেন আর যাদেরকে চিনেন না বা তার পরিচিত নয় তাদের কে গালমন্দ করে বের করে দিয়েছেন।

এ বিষয়ে আলাউদ্দিন হাওলাদারের মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি গলা ধাক্কা এবং গালমন্দ করার বিষয়টি অস্বীকার করে জানান,তিনি তার ওয়ার্ডের জন্য সরকারী ভাবে মাত্র ৭৫ জনের ত্রান পেয়েছেন।আর এই ত্রানের তালিকায় যাদের নাম রয়েছে তাদের কে তিনি ফোনের মাধ্যমে ডেকে এনে তালিকানুযায়ী খাদ্য সামগ্রীর প্যাকেট দিয়ে দিচ্ছেন।

তিনি আরো বলেন স্থানীয় একটি মহল তার বিরুদ্বে নানা অপপ্রচার ও কূৎসা রটিয়ে বেড়াচ্ছে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment