খানপুর হাসপাতালে শুরু হলো করোনার চিকিৎসা

নারায়ণগঞ্জের খানপুরে ৩০০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা দেয়া শুরু হয়েছে। করোনা রোগীদের আইসোলেশনের জন্য বিশেষভাবে গুরুত্ব দিয়ে প্রস্তুত করা ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটিতে রয়েছে ভেন্টিলেশন ব্যবস্থা সম্পন্ন আইসিইউ সুবিধা। সোমবার (১৩ এপ্রিল) সকাল থেকে করোনা রোগীদের চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু করা হয়।

সোমবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে নারায়ণগঞ্জ ৩০০ শয্যা হাসপাতালের চিকিৎসা তত্ত্বাবধায়ক ডা. গৌতম রায় এ তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি বলেন, করোনা রোগীদের সেবা দেয়ার লক্ষ্যে হাসপাতালটি প্রস্তুতের জন্য গত কয়েকদিন ধরে হাসপাতালটির সকল কার্যক্রম বন্ধ ঘোষণা করা হয়। হাসপাতালের বিভিন্ন বিভাগের ভর্তি থাকা রোগীদের ইতিমধ্যেই নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। আজ সোমবার চালুর পর থেকে ৫ জন করোনা আক্রান্ত রোগী প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা নিয়ে চলে গেছেন। আইসোলেশন ওয়ার্ডটি এখনো পুরোপুরি প্রস্তুত হয়নি।

ডা. গৌতম রায় আরো জানান জানান, ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালটিতে ১০টি আইসিইউ এর সাথে ভেন্টিলেশন সম্পন্ন শয্যা এবং ৪০ টি আলাদা শয্যার ব্যবস্থা রয়েছে। হাসপাতালটি ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হলেও পুরো হাসপাতালটিই ব্যবহার করা হবে। কারণ আইসোলেশন হচ্ছে এমন একটি ব্যবস্থা যেখানে সংক্রমিত রোগীদের জন্য শুধু আলাদা বেড নয় একটি করে ওয়ার্ড প্রয়োজন হয়। যাতে তাকে সংক্রমণ নয় বা উপসর্গ আছে কিন্তু আক্রান্ত নয় এমন রোগীদের কাছ থেকে সম্পূর্ণভাবে আলাদা রেখে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা যায়। তাই প্রতিটি ওয়ার্ডেই নতুন করে কাজ করতে হয়েছে। সবকিছু নতুন ভাবে স্থাপন করতে হয়েছে।

গৌতম রায় আরো জানান, হাসপাতালটিতে সকল ধরণের ব্যবস্থা নিয়ে কাজ সম্পন্ন করতে চাইছি। হাসপাতালে গত শনিবার ঢাকা থেকে বিশেষ টিম এসে সকল ধরণের পরিকল্পনা করে দিয়ে গেছে। সে অনুযায়ী কাজ হয়েছে। পাশাপাশি চিকিৎসকদের টিম গঠন, পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা ও আশেপাশের সকল কিছু জীবাণুমুক্ত রাখতে বিশেষ পরিকল্পনা নেয়া আছে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment