সঠিক তথ্য জানুন, অপপ্রচারের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ান-মান্নান ভূঁইয়া

নারায়ণগঞ্জ নিউজ ২৪ ডট কম: করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে হটলাইনের মাধ্যমে তালিকা প্রস্তুত করে দিলে মানুষের ঘরে ঘরে স্বেচ্ছাসেবকরা ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন।

দ্রুত সময়ে ত্রাণ পাঠানোর জন্য সুযোগ্য জেলা প্রশাসক জনাব মোঃ জসিম উদ্দিন মহোদয়ের নির্দেশে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) জনাব মোহাম্মদ সেলিম রেজা স্যারের আন্তরিকতায় মানব কল্যাণ পরিষদের চেয়ারম্যান এম এ মান্নান ভূঁইয়া সহ ৭ জনকে গত ৫ এপ্রিল লিখিত আদেশে স্বেচ্ছাসেবকের দায়িত্ব দেন।

স্বেচ্ছাসেবকরা ৩ টি হোন্ডা দিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ত্রাণ পৌঁছে দিয়েছেন।মানুষের সেবায় বিনা পারিশ্রমিকে স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে হটলাইনের তালিকা অনুযায়ী করোনা ভাইরাস ঝুঁকির মধ্যে পিপিই, হ্যান্ড গ্লাভস ছাড়াই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রচন্ড রোধে হোন্ডা নিয়ে বিভিন্ন এলাকায় মানুষের ঘরে ঘরে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছেন স্বেচ্ছাসেবকরা।

ইতিমধ্যে এই লকডাউনের মধ্যে তালিকা অনুযায়ী ৩০ জনের বাড়িতে ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দেওয়া হয়েছে। অতিরিক্ত ত্রাণ সামগ্রী স্বেচ্ছাসেবকদের কাছে নেই। এর মধ্যেই একটি বিশৃঙ্খল চক্র পূর্ব শত্রুতার জের ধরে সাংবাদিক ও সমাজকর্মী এম এ মান্নান ভূঁইয়ার বিরুদ্ধে ত্রাণ আত্মসাতের অপপ্রচার চালিয়ে গুজব ছড়িয়ে মানবিক কাজে বাধাগ্রস্ত করেছে।

স্বেচ্ছাসেবকরা কোন সরকারি তালিকা তৈরি করে না। শুধুমাত্র স্বেচ্ছাসেবক হিসেবে ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দিচ্ছে মাত্র।এর বাইরে আর কিছু না। গুজবে কান না দিয়ে অপপ্রচার না চালিয়ে এ বিষয়ে জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে সঠিক তথ্যটি সহজেই পেয়ে যাবেন সবাই।কেউ অপপ্রচারের শিকার হবেন না। আপনার তথ্য বিভ্রাটের জন্য কারো জীবন অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে।

সকলের অবগতির জন্য বলা হচ্ছে যে স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন মানব কল্যাণ পরিষদ সবসময় আর্তমানবতার সেবায় সামাজিক উন্নয়নে কাজ করে চলেছে যা দৃশ্যমান। মানবিক বিপর্যয়ে সংগঠনের সদস্য ও কর্মীরা বরাবরের মতই মানবের সেবায় নিয়োজিত।

সরকারের বিভিন্ন কাজে সংগঠনটির অংশগ্রহণ লক্ষ্যনীয়। সরকারের বিভিন্ন দপ্তর থেকে মানব কল্যাণ পরিষদ অনুদান পেয়ে থাকেন এবং সদস্য ও কর্মী সহ শুভানুধ্যায়ীদের আন্তরিক সহযোগিতায় সংগঠনটি এগিয়ে যাচ্ছে মানুষের কল্যাণে।এই লক্ষ্যে জেলা প্রশাসক কার্যালয় থেকে মানব কল্যাণ পরিষদের নিম্নবিত্ত সদস্য ও কর্মীদের পরিবারের জন্য তালিকা অনুযায়ী ৪৩টা প্যাকেট উপহার দেন। এই জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ কর‌ছে সংগঠনটি।

মানব কল্যাণ পরিষদ করোনা ভাইরাস পরিস্থিতিতে অসহায় গরীব মানুষের পাশে দাঁড়াতে সংগঠনের জরুরী তহবিল থেকে পর্যায়ক্রমে প্রায় ৫০০ পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী বিতরণের উদ্যোগ নিয়ে কাজ করছে এবং গরীবদের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করছে।এটার সাথে জেলা প্রশাসনের কোন সম্পৃক্ততা নেই। সংগঠন আর জেলা প্রশাসন আলাদা বিষয়।
অনেকেই সত্য মিথ্যা যাচাই বাছাই না করে মিথ্যা বানোয়াট ভিত্তিহীন কথা বার্তা বলে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

যা নিন্দনীয় ও দুঃখজনক। গুজব ও অপপ্রচারের কারণে মানুষ অনেক ক্ষতিগ্রস্থ হতে পারে।তাই অনুগ্রহ করে সত্য মিথ্যা যাচাই বাছাই না করে কাউকে বিব্রতকর অবস্থায় ফেলবেন না।

যে ব্যক্তিরা ত্রাণ সামগ্রী নিয়ে এম এ মান্নান ভূঁইয়া ও সংগঠনের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালালো তারা কারা? তাদের বিষয়ে অনুগ্রহ করে খোঁজ খবর নিন সবাই।

বিগত চার বছর আগে সাংবাদিক ও সমাজকর্মী এম এ মান্নান ভূঁইয়া কে গুলি করে হত্যা করতে চেয়েছিল যারা, তারাই আজ মান্নান ভূঁইয়া কে আবারো হত্যা করার হুমকি দিয়েছে এবং তাদের কিছু খারাপ প্রকৃতির মহিলা দিয়ে অপপ্রচার চালিয়ে সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করেছে।

হুমকি ও অপপ্রচারের বিরুদ্ধে সমাজকর্মী ও সাংবাদিক এম এ মান্নান ভূঁইয়া সংশ্লিষ্ট থানায় জিডি ও অভিযোগ দায়ের করেছে। আশাকরি পুলিশ প্রশাসন অপপ্রচারকারী ও হুমকি দাতাদের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

সবাই সচেতনতার সহিত ভালো থাকবেন এবং ভালো রাখবেন। তা না হলে সমাজকর্মে স্বেচ্ছাসেবকরা আগ্রহ হারিয়ে ফেলবে। আল্লাহ সবাইকে হেদায়েত দান করুন। আমীন।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment