ফেনসিডিল পাচারের সকল কৌশল ভেস্তে গেছে এক প্রতারকের

নারায়ণগঞ্জ নিউজ ২৪ ডট কম: পাক্কা ইমানদার বা পরহেজগার মুসুল্লি সেজে র‌্যাবের সাথে একসাথে ইফতার করে ফেনসিডিল পাচারের সকল চেষ্টা বা কৌশল ভেস্তে গেছে এক প্রতারকের। তাকে আটক করে ফেলে র‌্যাব-১১। কিন্তু আটকের পূর্ব মূহুর্ত পর্যন্ত ঘুনাক্ষরেও বুঝার উপায় ছিলনা তিনি ফেনসিডিল পাচারকারী।

রবিবার (২৬ এপ্রিল) ইফতারের পর ঢাকা-চট্রগ্রাম মহাসড়কের কাঁচপুর ব্রিজের গোড়ায় এ ঘটনা ঘটে।

সূত্র মতে, র‌্যাবের কাছে আগেই খবর ছিল, কাঁচপুর ব্রিজ হয়ে একটি ফেনসিডিলের চালান আসবে। এমন খবরে র‌্যাব ব্রিজের নিচে চেকপোস্ট বসায়। অপেক্ষায় থাকে র‌্যাব। কিন্তু ততক্ষণে ইফতারের সময় হয়ে যায়। চেকপোস্টের কাছে তিন চারটে গাড়ি ছিল। র‌্যাব সদস্যদের কাছে যতটুকু ইফতার ছিল তা সেসব গাড়ি চালক-হেলপারদের নিয়ে ইফতার পর্ব সারা হয়।

এক সাথে ইফতার শেষে দাঁড়ি টুপি পরিহিত মুসল্লি টাইপের এক ব্যক্তি নীল রঙের পিকআপ চালিয়ে চেকপোস্ট পেরুনোর সময় র‌্যাবের অ্যাডভান্স টিম সিগন্যাল দিলে তিনি গাড়ি থামিয়ে নেমে পালানোর চেষ্টা করে। তবে, পালাতে আর পারেনি। আটক হয় সে।

পরে রাত ৯ টারদিকে র‌্যাব-১১ এর মিডিয়া অফিসার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. আলেপ উদ্দিন নিজের ব্যক্তিগত ফেসবুকে এ প্রসঙ্গে ঘটনার ভিডিও সহ একটি পোস্ট দেন।

এছাড়া তিনি এ প্রসঙ্গে গনমাধ্যমকে বলেন, প্রাইভেটকারে মাদ আসার কথা। তাই ব্রিজের নিচে চেক পোস্ট বসাই। এরমধ্যে ইফতারের সময় হলে চেক পোস্টে থামানো তিন চারটি গাড়ির চালকদের নিয়ে ইফতার করি। আমাদের সাথে ওই ব্যক্তিটিও ইফতার করেন। বোঝা সম্ভব হয়নি আমরা তার জন্যই অপেক্ষা করছিলাম। অবশ্য, তথ্যমতে মাদক ব্যবসায়ী প্রাইভেট কারে করে আসার কথা। কিন্তু তিনি ছিলেন পিকআপ ভ্যান চালক। তাই সন্দেহ হয়নি। এমনকী তাকে দেখতেও তেমন লাগেনি।

তিনি আরও জানান, ইফতার শেষ করে ওই ব্যক্তি যখন নিজের পিকআপ নিয়ে চেক পোস্ট অতিক্রম করবেন, তখন আমাদের অ্যাডভান্স টিম গাড়িটি সিগন্যাল দিলে তিনি গাড়ি থেকে নেমেই দৌঁড়ে পালানোর চেষ্টা করে ব্যার্থ হন। আটকের পর দৌঁড়ে পালনোর কারণ জানতে চাইলে সে পিকআপের ড্রাইভারের সিটের পিছন থেকে কয়েক ভাগে বিপুল সংখ্যক ফেনসিডিল বের করে দেয়।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment