মাসদাইরে ভাসুরের হাতে গৃহবধু নির্যাতনের শিকার

নিজস্ব প্রতিবেদক: নগরীর পশ্চিম মাসদাইর এলাকায় পারি বারিক কলহের জের ধরে ভাসুর আবদুল হকের হাতে নির্যাতনের শিকার তারই ছোট ভাইয়ের বউ কাকলী আক্তার (৩২)। এ ঘটনায় এক ভরি স্বর্ণ এবং ৭০ হাজার টাকা ছিন্তায়ের দাবী করে ভাসুরের বিরুদ্ধে নির্যাতিত গৃহবধূ ফতুল্লা মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

বৃহস্পতিবার সকালে পশ্চিম মাসদাইর এলাকায় এঘটনা ঘটে। এঘটনায় গৃহবধু কাকলী আক্তার বাদী হয়ে ২ জনের নাম উল্লেখ্য করে ফতুল্লা মডেল থানায় অভিযো দায়ের করেন। দেওভোগ বাংলা বাজার এলাকার বাসিন্দা মৃত জাফর উদ্দিনের ছেলে আবদুল হক (৫৫) ও তার ছেলে সাব্বিরের (১৭) বিরুদ্ধে এ অভিযোগ দায়ের করা হয়। নির্যাতনের শিকার মৃদুল ঢালীর স্ত্রী কাকলী (৩২) জানান, আমার ভাসুর আবদুল হক জোর করে আমাদের ৭০ পয়েন্ট জায়গা তার কব্জায় রাখেন। পরবর্তিতে শালিসের মাধ্যমে বসে তিনি তা ফেরৎ দিবে বলে জানান। আমরা তা ফেরৎ চাইলে তিনি তালবাহানা করেন। বৃহস্পতিবার সকালে আবদুল হক ও তার ছেলে সাব্বির এসে আমার গলায় চেপে ধরে শ^াসরোধে হত্যার চেষ্টা করে। এবং আমার ছেলে হাসানকে কিল ঘুষি ও এলো পাথারি ভাবে লাথি মেরে শরীরের বিভিন্ন জায়গায় জখম করে। আমাকে এখানে থাকতে দিবেনা বলে অগত্য ভাষায় গালি গালাজ করে। আমারে মেরে ফেলার হুমকি প্রদান করেন। তিনি আরো বলেন, আমার গলার এক ভরি স্বর্ণের চেইন এবং ওয়্যার ড্রপের ডয়ের থেকে ৭০ হাজার টাকা ছিনিয়ে নেন। পাশা পাশি ঘড়ের ফ্রিজ, খানাডুলি, সুকেস ভাংচুর করে প্রায় ৮০ হাজার টাকার মালামাল নষ্ট করে।আমি প্রশাসনের কাছে সঠিক বিচার চাই। ফতুল্লা মডেল থানার এস আই হাফিজ বলেন, আমরা অভিযোগ পেয়েছি। গটনাস্থলে গিয়ে তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment