আমি বিএনপি পরিবারের সন্তান : মোবারক হোসেন

স্টাফ রিপোর্টার : দীর্ঘ এক যুগ ধরে নেই আড়াইহাজার উপজেলা ছাত্রদলের কমিটি । এদিকে অবশেষে বহু প্রতীক্ষিত আড়াইহাজার উপজেলা ছাত্রদলের কমিটি হতে চলেছে।

নেতৃত্বে আসতে পারে বড় ধরনের চমক। কারন মাঠ পর্যায়ের তৃণমূল যোগ্য ত্যাগী ও পরীক্ষিত কর্মীদের নিয়ে গঠিত হবে আড়াইহাজার উপজেলা ছাত্রদলের কমিটি। আড়াইহাজার উপজেলা ছাত্রদলের রাজপথের পরীক্ষিত নেতা মোবারক হোসেন।

সম্পূর্ণ বিএনপি পরিবারের সন্তান । দীর্ঘ এক যুগেও বেশী সময় ধরে ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত মোবারক হোসেন । কিন্তু একটি কুচক্রী মহল তার বিরুদ্ধে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মিথ্যা প্রচারণা চালাচ্ছে । উপজেলা ছাত্রদলের কমিটি যাতে করে সে না আসতে পারে তার জন্য তার বিরুদ্ধে এ অপ্রচার চালাচ্ছে ।

জানাগেছে , আড়াইহাজার উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক পদপ্রার্থী ছাত্রদল নেতা মোবারক হোসেনের রাজপথের পরিক্ষীত নেতা । জেলা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক মাসুকুল ইসলাম রাজীবের একজন বিশ্বস্থ কর্মী হিসেবে ছাত্রদলের রাজনীতিতে ব্যাপক ভুমিকা রেখেছেন মোবারক হোসেন। বর্তমানে যারা ছাত্রদলের নেতৃত্ব প্রত্যাশি তারা ওয়ার্ড পর্যায়ের কর্মীও যখন ছিলেন না তখন মোবারক হোসেন জেলা পর্যায়ে মিটিং মিছিল করেছেন। প্রায় দীর্ঘ এক যুগ ধরে ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে জড়িত তিনি। স্কুলে লেখাপড়ার সময়ে ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ততা হন। সম্পূর্ণ বিএনপি রাজনীতি পরিবারের সন্তান মোবারক হোসেন। তার বাবা আবুল কাশেম আড়াইহাজার উপজেলাধীন কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতি, আপন চাচা তৎকালিন কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়ন ছাত্রদলের সাধারন সম্পাদক আব্দুস সালাম । বিএনপির রাজনীতির একজন সক্রিয় নেতা ছিলেন । পরবর্তী সন্ত্রাসীরা ২০১০সালে তাকে নিঃশ্বস ভাবে কুপিয়ে হত্যা করে । আরেক চাচা আবু কালাম কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়ন যুবদলের সাথে সম্পৃক্ত । তার আপন ফুফা আবদুল মালেক মেম্বার ইউনিয়ন বিএনপির বর্তমান সাধারণ সম্পাদক পদে রয়েছেন।

ছাত্রজীবনে রাজনীতি প্রবেশ করে মামলা, হামলা ও নির্যাতনের শিকার হয়েছেন মোবারক হোসেন। জেলা ছাত্রদলের সাবেক আহ্বায়ক মাসুকুল ইসলাম রাজীবের সময়ে আড়াইহাজার থেকে শত শত ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের নিয়ে নারায়ণগঞ্জ শহরে এসে আন্দোলন সংগ্রামসহ মিছিল সমাবেশে অংশগ্রহণ করেন। পরবর্তীতে জেলা ছাত্রদলের সভাপতি মশিউর রহমান রনি ও সাধারণ সম্পাদক খায়রুল ইসলাম সজীবের নেতৃত্বে ঢাকা ও নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন কর্মসূচিতে নেতাকর্মী নিয়ে অংশগ্রহণ করেন।

বিএনপির তথা ছাত্রদলের প্রতিটি কর্মসূচিতে রাজপথে সক্রিয় ভূমিকা পালন করেছে মোবারক হোসেন। বিএনপির ডাকে নির্দলীয় তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীনে জাতীয় নির্বাচন, কারাবন্দি বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে রাজপথে আন্দোলনে সংগ্রামে করতে গিয়ে হামলা মামলা শিকার হয়ে কারাভোগ ও করেছেন মোবারক হোসেন। তার বিরুদ্ধে ১০টির অধীক মামলায় রয়েছে। এখনো মামলার বোঝা মাথায় নিয়ে প্রতিনিয়ত আদালতে হাজিরা দিতে হচ্ছে তাকে। এত অত্যাচার নিযাতন করার পরও মোবারক হোসেন তার নীতি আদশের জায়গা থেকে এক পাও পিছু হটেননি।

এছাড়াও মহামারী করোনা ভাইরাস শুরু থেকে প্রতিনিয়ত আড়াইহাজার উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়ন ও ওয়ার্ডে দফায় দফায় অসহায় হতদরিদ্র মানুষের মানুষের খাদ্য সামগ্রী বিতরণ করেন । এর মধ্যে আড়াইহাজার উপজেলা এলাকায় বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদকে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত করে অসহায়দের মাঝে ত্রান সামগ্রী বিতরণ করেন। এছাড়াও আড়াইহাজারের নদী বেষ্টিত দূরগম চর অঞ্চল কালাপাহাড়িয়া ইউনিয়নের হতদরিদ্র অসহায় মানুষের মাঝে নিজ উদ্যোগে খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেন। করোনা পরিস্থিতির সময়ে ছাত্রদলনেতা মোবারক হোসেনের এ উদ্যোগকে উপজেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা প্রশংসা করেন ।

এ বিষয়ে আড়াইহাজার উপজেলা ছাত্রদল নেতা মোবারক হোসেন বলেন, আমার নেতা বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সহ- আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদের দীক নির্দেশনা মোতাবেক আড়াইহাজারের ছাত্রদলকে সুসংগঠিত করার লক্ষ্যে কাজ করছি। আমি দীর্ঘদিন যাবৎ ছাত্রদলের রাজনীতির সাথে সম্পৃক্ত আছি। আমি বিএনপি পরিবারের সন্তান আমাকে আওয়ামীলীগ বানানোর অপচেষ্টা চালানো হচ্ছে।আমি উপজেলা ছাত্রদলের আহ্বায়ক পদপ্রার্থী। আমি যাতে কমিটি আসতে না পারি তার জন্য আমার বিরুদ্ধে এসকল অপ্রচার চালাচ্ছে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment