জামিন পেলেন মুফতি আলাউদ্দিন জিহাদী

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে গ্রেপ্তার মুফতি আলাউদ্দিন জিহাদী জামিনে মুক্ত হয়েছেন। ২৭ সেপ্টেম্বর ( রোববার ) জেলা ও দায়রা জজ আনিসুর রহমানের আদালত এ জামিন মঞ্জুর করেন।
জামিনের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন নারায়ণগঞ্জ জেলা পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) ওয়াজেদ আলী খোকন।
এর আগে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের প্রয়াত আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীর মৃত্যু নিয়ে কটূক্তির অভিযোগে এনে দেওভোগ মাদ্রাসার খতিব হারুনুর রশীদ বাদী হয়ে মুফতি আলাউদ্দিন জিহাদীর বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের একটি মামলা করা হয়। ওই মামলায় গত ২০ সেপ্টেম্বর দুপুরে ফতুল্লার মাহমুদপুর এলাকার নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। ওই মামলায় পুলিশ একদিনের রিমান্ডে নিয়েছিল মুফতি আলাউদ্দিন জিহাদীকে। এদিকে জিহাদীর মুক্তি দাবীতে গণজমায়েতের ডাক দেওয়া হয়। কিন্তু নারায়ণগঞ্জ শহরে ১৪৪ ধারা জারি করেছে জেলা প্রশাসন। ২৭ সেপ্টেম্বর রোববার ভোর ৬টা হতে পরবর্তী ঘোষণা না দেওয়া পর্যন্ত এ ১৪৪ ধারা জারি থাকবে। নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক জসিমউদ্দিন সাক্ষরিত এ সংক্রান্ত আদেশে বলা হয়, আহলে সুন্নত ওয়াল জামাত নারায়ণগঞ্জ শহরের ২নং রেল গেট এলাকাতে সভার আয়োজন করে। এছাড়া আরেকটি পক্ষও সভার ডাক দেয়। এ অবস্থায় পরিস্থিতি ঠিক রাখতে সিটি করপোরেশন ভবন হতে চাষাঢ়া শহিদী মিনার ও খানপুর ৩০০ শয্যা এলাকা পর্যন্ত ১৪৪ ধারা জারি থাকবে। এখানে কোন প্রকার জটলা, মিছিল মিটিং, সমাবেশ, যে কোন ধরনের অস্ত্র বহন, সন্দেহজনক ঘোরাফেরা নিষিদ্ধ। এছাড়া ২নং রেল গেট, শহীদ মিনার, গ্রীন্ডলেজ ব্যাংক মোড় এলাকাতে পৃথকভাবে তিনজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটকে দায়িত্ব পালনের নির্দেশনা রয়েছে। এর আগে ২৬ সেপ্টেম্বর শনিবার রাতে জেলা পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ওলামা পরিষদ ও হেফাজাত নেতৃবৃন্দ সহ আহলে সুন্নত ওয়াল জামাতের নেতাদের সঙ্গে পৃথকভাবে বৈঠক করেন। বৈঠকে উভয় পক্ষকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে কোন ধরনের জমায়েত ও উচ্ছৃঙ্খল আচরণ করা যাবে না। সেই সঙ্গে উস্কানিও চলবে না।
Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment