চাঁদাবাজির মামলায় জুয়ারী তাপু গ্রেফতার

নারায়ণগজ্ঞ নিউজ ২৪ ডট কম : প্রভাবশালী মিডিয়েটর থেকে শুরু করে বিশিষ্ট স্তরের লোকজনের তদ্বীর পেছনে ঠেলে আদালতে পাঠানো হয়েছে ইউনাইটেড এসোসিয়েশনের সভাপতি জুয়ারী তোফাজ্জল হোসেন তাপুকে। ২০১৯ সালের ৩ অক্টোবর জুয়ার আসর থেকে গ্রেফতারের পর একটি দালাল চক্র ও তেল চোরাকারবারীদের কেউ কেউ নানাভাবে তদ্বির চালিয়ে রক্ষা করে অপরাধীদের । এ যাত্রায় রেহাই পেয়ে আরো বেপরোয়া হয়ে পড়ে তাপু চক্র। এবার ২০ লাখ টাকা চাঁদার দাবীতে দেয়াল ভাঙ্গা ও হুমকি দেয়ার অভিযোগে তুলে হোসেন জুট মিলের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ মেহেদী হোসেনের করা মামলায় তাকে গ্রেফতার করে ফতুল্লা মডেল থানার পুলিশ। এমন চাঁদাবাজির মামলায় তোফাজ্জল হোসেন তাপুকে ফতুল্লা থানা পুলিশ বুধবার ২৮ অক্টোবর রাতে গ্রেফতার করলে নানাভাবে চেষ্টা চলে বিতর্কিত ব্যবসায়ী ও ভুমিদস্যু তোফাজ্জল হোসেন তাপুকে রক্ষা করতে । কোন তদ্বিরে কোনভাবেই কার্ণপাত না করে থানা হাজতে পাঠানোর আদেশ দেন ফতুল্লা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন। একই ভাবে সারারাত ব্যাপী চাঁদাবাজি মামলার বাদী হোসেন জুট মিলের ব্যবস্থপনা পরিচালক সৈয়দ মেহেদী হোসেনের কাছে নানাভাবে মামলা প্রত্যাহার ও আপোষ মীমাংসা করতে জোরালো তদ্বির চালায় দালাল চক্রের সহযোগিরা । এই মামলা যাতে কোন অবস্থাতেই তাপু কারাগারে যেতে না হয় সে লক্ষ্যে মধ্য রাত পর্যন্ত তাপুর একান্ত সহযোগি ও প্রশ্রয় দাতা চক্রটি নানাভাবে তদ্বির চালিয়ে অতিষ্ট করে তুলে পুলিশের কর্মকর্তাদের। তদ্বীরে অতিষ্ঠ পুলিশের এক কর্মকর্তা রীতিমত তদ্বীরবাজদের প্রতি ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং জানান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কঠোর নির্দেশে অপরাধী যেই হোক তাকে আইনের আওতায় আসার আদেশ দেয়া হয়েছে । সেই মোতাবেক বৃহস্পতিবার ২৯ অক্টোবর ফতুল্লা থানা এলাকার ধর্মগঞ্জের মৃত মৃত আঃ মজিদের ছেলে তোফাজ্জাল হোসেন তাপু কে সাত (৭) দিনের রিমান্ডের আবেদন করে আদালতে পাঠায় পুলিশ । এদিকে মামলার মীমাংসার জন্য চাপ দেয়া প্রসঙ্গে মামলার বাদী ও হোসেন জুট মিলের ব্যবস্থপনা পরিচালক সৈয়দ মেহেদী হোসেন কোন মন্তব্য করছেন না।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment