গবেষণা চুরির শাস্তি পেয়েছেন সামিয়া রহমানসহ ৩ জন

নারায়ণগজ্ঞ নিউজ ২৪ ডট কম : গবেষণা চৌর্যবৃত্তির শাস্তি পেয়েছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের তিন শিক্ষক। চৌর্যবৃত্তি বা গবেষণায় চুরির কারণে সামিয়া রহমান ও ওমর ফারুকের পদাবনমন ঘটেছে; সে সাথে ওমর ফারুকের পিএইচডি ডিগ্রী বাতিল করা হয়েছে। অন্যদিকে সৈয়দ মাহফুজুল হক মারজান ২ বছর পদোন্নতি পাবেন না। সামিয়া রহমানকে সহযোগী অধ্যাপক থেকে এক ধাপ নামিয়ে সহকারী অধ্যাপক করে দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট। আলোচিত সেই গবেষণা প্রবন্ধে তার চৌর্যবৃত্তির সহযোগী ছিলেন সৈয়দ মাহফুজুল হক মারজান। পিএইচডি থিসিসে জালিয়াতির কারণে ওমর ফারুককে সহকারী অধ্যাপক থেকে প্রভাষক পদে অবনমন ঘটানো হয়েছে। তার ডিগ্রিও বাতিল করা হয়েছে। দুটি ঘটনায় অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় এই তিন শিক্ষকের শাস্তি নির্ধারণে দুটি ট্রাইব্যুনাল গঠন করেছিল বিশ্ববিদ্যালয় সিন্ডিকেট। ট্রাইবুনালের সুপারিশ অনুযায়ী আজ (২৮ জানুয়ারী) বিশ্ববিদ্যালয়ের সিন্ডিকেট এই শাস্তি দেয়। ২০১৬ সালে সামিয়া রহমান ও মারজানের যৌথভাবে লেখা ‘এ নিউ ডাইমেনশন অব কলোনিয়ালিজম অ্যান্ড পপ কালচার : এ কেস স্টাডি অব দ্য কালচারাল ইমপেরিয়ালিজম’ শিরোনামের আট পৃষ্ঠার একটি গবেষণা প্রবন্ধ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘সোশ্যাল সায়েন্স রিভিউ’ জার্নালে প্রকাশিত হয়। ১৯৮২ সালের শিকাগো ইউনিভার্সিটির জার্নাল ‘ক্রিটিক্যাল ইনকোয়ারি’তে প্রকাশিত ফরাসি দার্শনিক মিশেল ফুকোর ‘দ্য সাবজেক্ট অ্যান্ড পাওয়ার’ নামের একটি নিবন্ধ থেকে এখানে প্রায় পাঁচ পৃষ্ঠা হুবহু নকল ছিল। ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে এক লিখিত অভিযোগে মাধ্যমে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষকে এই চুরির কথা জানিয়েছিল ইউনিভার্সিটি অব শিকাগো প্রেস।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment