মামুনুলহকসহ ৮৩জনের নাম উল্লেখ সোনারগাঁও থানায় ৩ মামলা

নারায়ণগজ্ঞ নিউজ ২৪ ডট কম : নারায়নগঞ্জের সোনারগাঁওয়ে রয়েল রিসোর্টে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করার ঘটনায় উওপ্ত হয়ে হেফাজত কর্মীদের তান্ডবের ঘটনার পর পুলিশের কাজে বাধা ও হামলা, সাংবাদিকের ওপর হামলায় থানায় তিনটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বুধবার দুপুরে সোনারগাঁও থানায় দুই পুলিশ কর্মকর্তা বাদি হয়ে দুটি ও হেফাজত নেতাকর্মীদের হামলায় আহত সাংবাদিক হাবিবুর রহমান বাদী হয়ে একটিসহ তিনটি মামলা দায়ের করেন। সোনারগাঁও থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান মামলার দায়েরের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনটি মামলা হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হককে প্রধান আসামী করে ৫’শ জনকে আসামী করা হয়।

এ ঘটনায় এজহারভূক্ত ৩ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এদের মধ্যে পুলিশের দুটি মামলার এজাহারভুক্ত আসামী একজনের নাম মোস্তাফা বলে জানা গেছে। মোস্তফাকে ৭দিনের রিমান্ড চেয়ে আদালতে প্রেরণ করেছে।
জানা যায়, সোনারগাঁওয়ের রয়েল রিসোর্টে হেফাজতে ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মামুনুল হক তার দ্বিতীয় স্ত্রীকে নিয়ে গত শনিবার বেড়াতে এসে রয়েল রিসোর্টে অবস্থান নেয়। এ খবরে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা মামুনুল হককে আটক করে অবরুদ্ধ করে তার সাথে খারাপ আচরণের অভিযোগ উঠে।

এ ঘটনাটি ফেসবুকে ভাইরাল হলে সন্ধ্যায় হেফাজতের কয়েকশ’ কর্মী-সমর্থকরা রয়েল রিসোর্টে হামলা ও ভাংচুর করে মামুনুল হককে পুলিশের কাছ থেকে ছিনিয়ে নেয়। পরে রাতে মোগরাপাড়া চৌরাস্তা জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা মহিউদ্দিন খান ও মাওলানা ইকবালের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক নেতা-কর্মী ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে নেমে আসে।

মামুনুল হককে হেনস্তা করার প্রতিবাদে তারা ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেন। তাদের ইট-পাটকেল নিক্ষেপে পথচারী ও সংবাদকর্মীসহ ১৫ জন আহত হন। সড়কে টায়ার ফেলে তাতে আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ করে। ভাংচুর চালানো হয়েছে যুবলীগ নেতা রফিকুল ইসলাম নান্নুর রেস্তোরাঁ ও উপজেলা আওয়ামী লীগের কার্যালয়সহ আরও কয়েকটি দোকানে।

এ ঘটনায় গতকাল বুধবার দুপুরে পুলিশের কাজে বাধা, হামলা ও ভাংচুরের ঘটনায় সোনারগাঁও থানার উপ-পরিদর্শক(এসআই) ইয়াউর রহমান বাদি হয়ে মামুনুল হককে প্রধান আসামী করে ৪১ জনের নাম উল্লেখ করে ও সন্ত্রাস বিরোধী আইনে আরিফ হাওলাদার বাদী হয়ে মামুনুল হককে ৪২ জনের নাম উল্লেখ করে আরো একটি মামলা দায়ের করেন। মামলায় ৫ শতাধিক অজ্ঞাত আসামী করা হয়েছে।

এদিকে শনিবার মাওলানা মামুনুল হককে অবরুদ্ধ করার ঘটনার তথ্য সংগ্রহ করতে যাওয়া স্থানীয় সাংবাদিক হাবিবুর রহমানকে মামুনুল হকের দাড়ি ধরে টান দেওয়ার অভিযোগ তুলে সনমান্দি ইউনিয়নের ভাটিরচর গ্রামে সাংবাদিকের উপর হামলা ও বাড়িঘর ভাংচুরের ঘটনায় মামুনুল হককে প্রধান আসামী ও ১৭জনকে নাম উল্লেখসহ ৭০-৮০জনকে আসামী করা হয়।

সোনারগাঁও থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান জানান, হেফাজতের তান্ডবের ঘটনায় সোনারগাঁও থানায় তিনটি মামলা গ্রহন করা হয়েছে।

এ মামলায় কয়েক’শ জনকে আসামী করা হয়েছে। সিসিটিভির ফুটেজ দেখে আসামী সনাক্ত করে নাম ঠিকানা অর্ন্তভূক্ত করা হবে। এ ঘটনায় এজহারভূক্ত তিনজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment