আলীগঞ্জ মাঠে উচ্ছেদ অভিযানে বাধার মুখে প্রশাসন

নারায়ণগঞ্জ নিউজ ২৪ ডট কম: কর্মকর্তাদের আবাসন প্রকল্পের ভবন নির্মাণের জন্য নির্ধারিত স্থান ফতুল্লার আলীগঞ্জে খেলার মাঠে উচ্ছেদ করতে আসা ভ্রাম্যমান আদালত। স্থানীয় এলাকাবাসি ও শিক্ষার্থীদের বাধার মুখে উচ্ছেদ না করেই ফিরে যেতে বাধ্য হয় গণপূর্ত বিভাগ।

রোববার (২৬ মে) দুপুর ১২টায় প্রথম দফায় স্থানীয় এলাকাবাসীও শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের মুখে ফেরত আসে উচ্ছেদকারী দল।

পরবর্তীতে এক ঘন্টা বিরতি দিয়ে দ্বিতীয় দফায় বেলা আড়াইটায় বেকু-বুলডোজার নিয়ে  নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসনের নিবার্হী ম্যাজিস্ট্রেট রেজওয়ান আহমেদের নেতৃত্বে বিপুল সংখ্যক র‌্যাব পুলিশ সদস্য নিয়ে উচ্ছেদ করতে গিয়ে বাধার মুখে ফিরে যাবার সময় কাগজপত্র যাচাই বাছাই শেষে সাত দিনের সময় দিয়েছেন বর্তমান দখলদারদের।

দ্বিতীয় দফায় উচ্ছেদকারী দলে যোগ দেন সদর উপজেলার ইউএনও নাহিদা বারিক।

উচ্ছেদ কার্যক্রম বন্ধ ঘোষনা করে জেলা প্রশাসনের নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট রিজওয়ান আহম্মেদ জানান, স্থানীয় একটি প্রভাবশালী মহল কয়েকটি সংস্থা থেকে লীজ এনে সরকারি আবাসন প্রকল্পের বেশ কিছু জায়াগা দখল করে রেখেছে। তাদেরকে সাত দিনের সময় দেয়া হয়েছে। সবার কাগজপত্র যাচাই বাছাই করে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এর আগে এলাকাবাসী ও বিভিন্ন স্কুল মাদ্রসারা শিক্ষার্থীরা খেলার মাঠে প্রবেশে মুখে বাধা দেয়। মাঠ রক্ষার দাবিতে তারা ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ পুরাতন সড়কে টায়ারে আগুন জ্বালিয়ে অবরোধ সৃষ্টি করে মানববন্ধন ও বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন। এ সময় ঢাকা-নারায়নগঞ্জ সড়কে যান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

নারায়ণগঞ্জ গণপূর্ত বিভাগের নিবার্হী প্রকৌশলী জাকির হোসেন জানান, প্রধানমন্ত্রীর একনেকে সভায় অনুমোদিত অগ্রাধিকার প্রকল্প অনুযায়ী সরকারি কর্মচারীদের আবাসান প্রকল্প নির্মাণ করার জন্য গণপূর্ত বিভাগ ১১ দশমিক ৬৭ একর জায়গা অধিগ্রহণ করে ভবন নির্মাণ কাজ শুরু করে। কিন্তু এখানে খেলার মাঠের দাবিতে স্থানীয় লোকজন বেশ কিছুদিন ধরে মাঠ ও মাঠের আশেপাশের জায়গা অবৈধভাবে দখল করে রেখেছে। এই জায়গা দখলমুক্ত না হওয়ায় ভবন নির্মাণ কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না।

তিনি আরও জানান, এই প্রকল্পের আওতায় আড়াই একর জমির উপর একটি খেলার মাঠসহ প্রায় সাড়ে চার একর ভূমি সর্বসাধারণের জন্য উন্মুক্ত থাকবে। এলাকাবাসী এই বিষয়টি অবগত ছিলেন না। বিষয়টি তাদেরকে অবগত করে এই জায়াগার দখল ছেড়ে দিতে এক সপ্তাহ সময় দেয়া হয়েছে।

স্থানীয় ক্রীড়া প্রতিষ্ঠান আলীগঞ্জ ক্লাবের সভাপতি কাউছার আহম্মেদ পলাশ জানান, জেলা পরিষদ থেকে লীজকৃত জায়াগাটি কয়েক যুগ ধরে খেলার মাঠ হিসেবে ব্যবহৃত হয়ে আসছে। এই মাঠকে শেখ রাসেলের নামে মিনি স্টেডিয়াম হিসেবে গড়ে তুলতে সরকারের কাছে দাবি জানান তিনি। এই মাঠ না থাকলে স্থানীয় যুবসমাজ মাদকের প্রতি আসক্ত হয়ে পড়বে বলে তিনি আশংকা প্রকাশ করেন।

উচ্ছেদ অভিযানে গনপূর্ত বিভাগ নারায়নগঞ্জের নির্বাহি প্রকৌশলী মোঃ জাকির হোসেনের তত্বাবধানে জেলার নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট ফতুল্লা অঞ্চলের এসিল্যান্ড রেজোয়ান আহমেদের নেতৃত্বে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার(ক-সার্কেল)মেহেদী ইমরান সিদ্দিকী,ওসি আসলাম হোসেন,ওসি(তদন্ত) হাসানুজ্জামানসহ পুলিশের ৪০জন সদস্য এবং র‌্যব-১১এর ৮সদস্যের একটি দল অংশ নেয়।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment