রুপগঞ্জে সেজান জুসের কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ড, দুই শ্রমিক নিহত-আহত অর্ধশত

নারায়ণগন্জ নিউজ ২৪ ডট কম : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ভুলতা কর্ণগোপ এলাকায় হাশেম ফুডস অ্যান্ড বেভারেজ গ্রæপের সেজান জুসের কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকান্ডের ঘটনা ঘটেছে। বৃহস্পতিবার বিকালে ৫টায় অগ্নিকান্ডের সূত্রপাত। আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট। এ সময় কারখানার ৭ তলা ভবনে আগুনের লেলিহান শিখা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে। এ ঘটনায় মিনা আক্তার (৪০) ও স্বপ্না রানী নামে দুই শ্রমিক নিহত হয়েছেন বলে খবর পাওয়া গেছে। হতাহতের সংখ্যা অর্ধশতাধিকের বেশি বলে জানা গেছে।

এর মধ্যে ১০ জনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। অপরদিকে রূপগঞ্জের ইউএস বাংলা মেডিকেল কলেজে ১৬ জনকে ভর্তি করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বিকাল ৫টার দিকে এ ঘটনা ঘটে। এদিকে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ৬টি ইউনিট আগুন নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা চালালেও আড়াই ঘণ্টার মধ্যেও আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি। ওই কারখানায় ৭-৮ হাজার লোক কর্মরত আছেন বলে শ্রমিকদের মাধ্যমে জানা যায়।

খোজ নিয়ে জানা যায়, কারখানাটিতে আগুন লাগার পর শ্রমিকরা বাঁচাও বাঁচাও করে চিৎকার করে কারখানা থেকে বেরিয়ে আসছিলেন। চারদিকে কান্নার মাতম ছড়িয়ে পড়ে। এদিকে হতাহতের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইউএস বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ডিউটি ডাক্তার মো. শাহাদাত হোসেন।

তিনি জানান, নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ভুলতা কর্ণগোপ এলাকায় সেজান জুস কারখানার হাশেম ফুড অ্যান্ড বেভারেজ কারখানার অগ্নিকান্ডে ২ জন নিহত হয়েছেন।

রূপগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স স্টেশনের একজন ডিউটি অফিসার জানান, বৃহস্পতিবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে হাশেম ফুডস কারখানার সেজান জুসের সাত তলা ভবনে আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১১টি ইউনিট সেখানে কাজ করছে। বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ৮টার দিকে ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ভবনটির আগুন নিয়ন্ত্রণে আসেনি। ৬ তলা পর্যন্ত আগুন জ্বলছে।

রাত সোয়া ৮টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত আগুন নিয়ন্ত্রনে ফায়ার সার্ভিস কাজ করছে এমনটি জানা যায়। অগ্নিকান্ডরে বিষয়টি নিশ্চিত করে নারায়ণগঞ্জ জেলা ফায়ার সার্ভিসের উপ-পরিচালক মো. আব্দুল আল আরেফিন বলেন, প্রাথমিকভাবে শুনেছি ওয়েল্ডিংয়ের কারণে সেজান জুসের কারখানায় আগুন লাগে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment