রূপগঞ্জে ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে কারখানার ভেতর থেকে ৪৯ জনের মরদেহ উদ্ধার

নারায়ণগন্জ নিউজ ২৪ ডট কম : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে সজীব গ্রুপের হাশেম ফুড অ্যান্ড বেভারেজ লিমিটেডের কারখানায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে কারখানার ভেতর থেকে ৪৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। এর মধ্যে অধিকাংশই পোড়া লাশ। চেনার উপায় নেই। ইতোমধ্যে ৪৯টি লাশ ফায়ার সার্ভিসের চারটি অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

শুক্রবার (৯ জুলাই) দুপুরে কারখানার পোড়া ধ্বংস্তূপ থেকে এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এর আগে বৃহস্পতিবার (৮ জুলাই) বিকেলের অগ্নিকাণ্ডে কারখানা ভবন থেকে লাফিয়ে পড়ে তখনই তিনজনের মৃত্যু হয়।

দুপুর ২টার দিকে কারখানার সামনে ফায়ার সার্ভিসের ব্রিফিংয়ে জানানো হয়, কারখানার পোড়া ধ্বংসস্তূপ থেকে এখন পর্যন্ত ৪৯ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ভেতরে আরও মরদেহ থাকতে পারে, সেজন্য আরও তল্লাশিতে যাচ্ছেন ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা।

নারায়ণগঞ্জ ফায়ার সার্ভিসের উপপরিচালক দেবাশীষ বর্ধন বলেন, ৬তলা কারখানা ভবনের ওপরের দুই ফ্লোরে এখনও আগুন জ্বলছে। এ পর্যন্ত ৪৯ জনের লাশ উদ্ধার করেছি আমরা। ভেতরে আর কোনও লাশ আছে কিনা তা খুঁজে দেখছি। আগুন নিয়ন্ত্রণে আসার বিস্তারিত জানাতে পারবো।

এর আগে রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শাহ নুসরাত জাহান জানান, কারখানার ভেতর থেকে অনেকের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিসের সদস্যরা।

এদিকে উদ্ধার কৃত লাশের সামনে স্বজনদের আহাজারিতে ঘটনাস্থলের চারদিকে এক হৃদয় বিদারক দৃশ্যের অবতারনা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে কারখানা ভবনের নিচতলায় আগুন লাগে। মুহূর্তেই আগুন ভবনের অন্যান্য তলায় ছড়িয়ে পড়ে। আতঙ্কে শ্রমিকরা ভবনের ছাদে জড়ো হন। ছাদসহ বিভিন্ন তলা থেকে লাফিয়ে পড়েন অনেকে।

শুক্রবার (৯ জুলাই) সকাল সাড়ে ১১টা পর্যন্ত ভবনটির পঞ্চম ও ষষ্ঠতলায় আগুন জ্বলছিল। কারখানাটির পঞ্চমতলার একপাশে সেমাই, সেমাই ভাজার তেল, পলিথিন; অপর পাশে কারখানার গুদাম বলে শ্রমিকেরা জানিয়েছেন। কারখানার ষষ্ঠতলায় কার্টনের গুদাম বলে জানা গেছে।

টানা ১৮ ঘণ্টা ধরে আগুন জ্বলতে থাকায় ছয়তলা ভবনটিতে ফাটল দেখা দেয়।

 

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment