ঢাকা-নারায়নগঞ্জ লিংক রোড অবোরোধ করে বিক্ষোভ করেছে পোশাক শ্রমিকরা

নারায়ণগন্জ নিউজ ২৪ ডট কমঃ নারায়ণগঞ্জের ফতুল্লায় বকেয়া বেতনের দাবিতে ঢাকা-নারায়নগঞ্জ লিংক রোড অবোরোধ করে বিক্ষোভ করেছে বিক্ষুব্ধ পোশাক শ্রমিকরা। বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) সকাল ১১ টার দিকে ফতুল্লার লামাপাড়াস্থ রুপসী  গার্মেন্টস নামক একটি কারখানার শতশত শ্রমিকরা কর্মবিরতি দিয়ে রাস্তায় নেমে আসে।

সড়ক অবরোধের কারণে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ সংযোগ সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে আছে। এতে ওই সড়কের দুই পাশে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।

এক পর্যায়ে শ্রমিকরা ক্ষুদ্ধ হয়ে পুলিশের উপর ইট পাটকেল নিক্ষেপ করে। এসময় পুলিশ লাঠি চার্জ আর টিআর সেল নিক্ষেপ করে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন শ্রমিক আহত হয়। তাৎক্ষনিকভাবে তাদের নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি।

প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, রূপসী গার্মেন্টসে প্রায় আড়াই হাজার শ্রমিক কাজ করেন। তবে কারখানাটি শ্রমিকদের ফেব্রুয়ারি ও মার্চ মাসের বেতন বকেয়া রেখেছে। গতকাল বুধবার শ্রমিকদের ফেব্রুয়ারি মাসের বেতন দেওয়ার কথা ছিল।

কিন্তু বেতন পরিশোধ না করায় শ্রমিকেরা আজ সকাল ১০টার দিকে কারখানার ভেতরে বিক্ষোভ শুরু করেন। একপর্যায়ে তাঁরা ১১টার দিকে কারখানা থেকে বের হয়ে রাস্তায় নেমে ঢাকা-নারায়ণগঞ্জ সংযোগ সড়ক অবরোধ করেন।

এতে ওই সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ফতুল্লা থানা-পুলিশ ও শিল্প পুলিশের একটি দল গিয়ে বিক্ষুব্ধ শ্রমিকদের সড়ক থেকে সরিয়ে দেওয়ার চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়। শ্রমিকদের দাবি, আজই তাঁদের বকেয়া বেতন পরিশোধ করতে হবে।

অন্যথায় তাঁদের আন্দোলন অব্যাহত থাকবে। এদিকে বেলা ১টার দিকে রূপসী গার্মেন্টসের সহকারী উপমহাব্যবস্থাপক নাছির উদ্দিন ঘটনাস্থলে এসে ঘোষণা দেন, আগামী সাত দিনের মধ্যে ফেব্রুয়ারি মাসের বকেয়া বেতন পরিশোধ করা হবে। তবে নাছির উদ্দিনের এ প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান করেছেন শ্রমিকেরা।

এক পর্যায়ে বেলা ২টার দিকে পুলিশ লাঠিচার্জ করে শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। এ ঘটনায় বেশ কয়েকজন শ্রমিক আহত হয়। তাৎক্ষনিকভাবে তাদের নাম ঠিকানা পাওয়া যায়নি।

ফতুল্লা মডেল থানার ওসি রকিবুজ্জামান জানান, শিল্প পুলিশের সমন্নয়ে থানা পুলিশ বিক্ষোভরত শ্রমিকদের শান্ত করে মালিক পক্ষের সঙ্গে আলোচনায় বসানোর চেষ্টা করা হয়েছে। কিন্তু শ্রমিকরা তাতে রাজি না তাৎক্ষনিক বেতন ভাতা দাবী করেন। বেতন ভাতা না পেলে সড়ক ছাড়বেনা।

এসময় শ্রমিকরা ক্ষিপ্ত হয়ে পুলিশের উপর ইটপাটকেল নিক্ষেপ করেন। এতে দিপঙ্কর নামে একজন এএসআই আহত হয়েছে। তাকে দ্রুত হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

তিনি আরো জানান, যানজট আর জনদূর্ভোগের বিষয়টি চিন্তা করে ভিক্ষুদ্ধ শ্রমিকদের ছত্রভঙ্গ করতে কিছু টিআর সেল নিক্ষেপ করা হয়েছে। একই সঙ্গে শর্টগানের গুলিও ছোড়া হয়েছে। নিক্ষেপকত গোলা বারুদের সংখ্যা হিসেব করে পরে জানানো হবে।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment