মামুন মাহমুদকে ছুরিকাঘাত করার ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা

নারায়ণগন্জ নিউজ ২৪ ডট কমঃ ঢাকার পল্টনে জেলা বিএনপির সদস্য সচিব মামুন মাহমুদের ছুরিকাঘাতের ঘটনা ভিন্নখাতে প্রবাহিত করার চেষ্টা চলছে। ইতোমধ্যে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল থেকে জেলা ছাত্রদল সহ-সভাপতি সাগর সিদ্দিকীকে গ্রেফতারের পর দেখা দিয়েছে চরম ক্ষোভ। একই সঙ্গে বিএনপির বেশ কয়েকজন নেতা কর্মীকে জড়ানোর চেষ্টা চলছে।

আজ নিউ মার্কেটের ঘটনায় মকবুলকে গ্রেফতারের প্রতিবাদে ছাত্রদল সহ-সভাপতি সাগর সিদ্দিকীর নেতৃত্বে নেতাকর্মীরা ঢাকায় প্রতিবাদ সমাবেশে যোগদান করেন। প্রতিবাদ সমাবেশ শেষে দুপুর ১২টায় সাগর সিদ্দিকী ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আহত বিএনপির সদস্য সচিব মামুন মাহমুদকে দেখতে যান। সেখানে যাওয়ার পর পুলিশ সাগর সিদ্দিকীকে গ্রেফতার করে পল্টন থানায় নিয়ে যায়। সন্দেহজনক হিসেবে তাকে আটকা করা হয়েছে বলে নিশ্বিচত করেছে পুলিশ।

সাগর সিদ্দিকীকে গ্রেফতারের বিষয়টি নারায়ণগঞ্জে বিএনপি ও তার অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীদের মাঝে ছড়িয়ে পড়লে তীব্র ক্ষোভ দেখা দেয়। এদিকে সোস্যাল মিডিয়ায় একটি পক্ষ বিএনপির বেশ কয়েকজন নেতাকর্মীর জড়িত থাকার মিথ্যা তথ্য ছড়িয়ে দিচ্ছে।

পল্টন থানা পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, বিষয়টি এখনো তদন্তানাধীন। এটি কোন ছিনতাইকারী গ্রুপ দ্বারা সংগঠিত হয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। পাশাপাশি বিএনপির আভ্যন্তরিন কোন্দলকে মাথায় রাখা হয়েছে। এ মুহুর্তে ছুরিকাঘাতের বিষয়টি কে বা কারা ঘটিয়েছে তা নিরুপন করা সম্ভব হয়নি। বেশ কয়েকটি বিষয় নিয়ে তদন্ত চলছে।

এদিকে বিএনপির নেতাকর্মীরা বলছেন, মামুন মাহমুদ বিএনপির কমিটি নিয়ে সারা জেলায় ক্ষোভের সঞ্চার করেছেন। প্রতিটি থানা কমিটি নিয়েই রয়েছে তার উপর ক্ষোভ। বিএনপির মহাসচিব ফকরুল ইসলাম আলমগীরের কাছের লোক হিসেবে পরিচিত মামুন মাহমুদ রাজনৈতিক অঙ্গনে অনেকটাই বেপরোয়া হয়ে উঠেছেন। অন্যদিকে এমপি শামীম ওসমানের সঙ্গেও পর্দার আড়ালে রয়েছে সমঝোতা। বিষয়টি খোদ স্থানীয় বিএনপির শীর্ষ নেতারাও জানেন।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment