আমাদের মধ্যে দ্বিধা-দ্বন্দ্ব সৃষ্টি করতে মামুন মাহমুদের উপর হামলা : গিয়াসউদ্দিন

নারায়ণগন্জ নিউজ ২৪ ডট কম ডেস্কঃ নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য ও বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য মো. গিয়াসউদ্দিন বলেন, দীর্ঘদিন পর এই ফতুল্লা এলাকায় আমরা সকল নেতাকর্মীরা একত্রিত হতে পেরেছি।

স্বৈরাচারীর বিরুদ্ধে আন্দোলন সংগ্রাম করতে সবসময় বিএনপির নেতাকর্মীরা প্রস্তুত থাকে। নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপি’র সদস্য সচিব মামুন মাহমুদকে দুষ্কৃতকারীর ছুরির আঘাতে ক্ষত-বিক্ষত হয়েছে আমরা এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাই।সুষ্ঠ তদন্ত এবং সুষ্ঠ বিচার এই সভা থেকে আহ্বান করছি।

২৬ এপ্রিল পাগলা সিসিলি কমিউনিটি সেন্টারে কুতুবপুর ইউনিয়ন বিএনপির ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথি’র বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন,আমাদের দলকে বিচ্ছিন্ন করে দেওয়ার জন্য এবং আমাদের মধ্যে দ্বিধা-দ্বন্দ্ব সৃষ্টি করার জন্য অনেক ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। এই স্বরযন্ত্রের ধারাবাহিকতায় মামুন মাহমুদকে আক্রমণ করা হয়েছে। আমাদের চোখ কান খোলা রাখতে হবে যাতে করে কেউ ষড়যন্ত্র করে আমাদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি না করতে পারে। আমাদের ঐক্যের মধ্যে ফাটল ধরাতে না পারে। আন্দোলন সংগ্রামে যাতে কোনো ব্যাঘাত ঘটাতে না পারে।

সরকারের সমালোচনা করে সাবেক এই এমপি বলেন, এই রমজান মাসে সাধারণ মানুষের মধ্যে কতো হাহাকার। এই সরকার পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি করে শোষণ করছে। আজকে মানুষ লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেও টিসিবি’র পণ্য নিতে পারে না। যেই খাদ্যের প্রয়োজন সেই খাদ্য না-দিয়ে অপ্রয়োজনীয় খাদ্য সাথে দিয়ে দিচ্ছে। এই সরকার মুখে বলে গণতান্ত্রের কথা কাজে নয়, আজকে রাষ্ট্রের গণতান্ত্রিক নাই, মানুষের মৌলিক অধিকার নাই। সরকারের বিরুদ্ধে কথা বললেই মামলা হামলা করে এবং মেরেও ফেলে।

গিয়াসউদ্দিন বলেন,এদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় নেত্রী তিনবারের প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া। শহীদ জিয়াউর রহমানের আমলে তিনি ছিলেন দেশের জনপ্রিয় নেতা, বর্তমানে দেশে জনপ্রিয় নেতা তারেক জিয়া। শুধু নেতা হলেই জনপ্রিয় হওয়া যায় না। জনপ্রিয় হতে হলে মানুষের কল্যানের জন্য কাজ করতে হবে, দেশের জন্য কাজ করতে হবে।  বিএনপি দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় দল এই দলকে সুসংগঠিত করার জন্য আমাদের কাজ করে যেতে হবে। আমরা সবাই দলের স্বার্থে কাজ করবো দেশের মানুষের স্বার্থে কাজ করবো। সকলের পরিচয় হবে আমরা সবাই বিএনপি। বিএনপি আমাদের দল বিএনপির বাইরে আমাদের কোনো পরিচয় হতে পারে না। কোনো ভাইয়ের রাজনীতি করা যাবে না, কোনো ব্যক্তির রাজনীতি করা যাবে না। কাউকে পকেট কমিটি করতে দেওয়া যাবে না। বিএনপি আমাদের প্রানের দল এই বিএনপিকে আমাদের রক্ষা করতে হবে।

ইফতার মাহফিলে কুতুবপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি লুৎফুর রহমান খোকার সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা থানা বিএনপি’র সদস্য সচিব শহীদুল ইসলাম টিটু।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ফতুল্লা থানা বিএনপির সাবেক সভাপতি মনিরুল ইসলাম, নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সদস্য  রিয়াদ মো. চৌধুরি, কুতুবপুর ইউনিয়ন বিএনপির সাবেক সভাপতি সুলতান মাহমুদ, কুতুবপুর ইউনিয়ন বিএনপির সহ-সভাপতি তৈয়বুর রহমান, সাবেক সাধারণ সম্পাদক বিল্লাল হোসেন, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন, সাংগঠনিক সম্পাদক কাজি আমিন, জেলা যুবদলের সাবেক সহ-সভাপতি তরিকুল ইসলাম তারেক, ফতুল্লা থানা জাসাস এর সভাপতি আব্দুল লতিফ তুষারসহ জেলা যুবদল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment