অবশেষে ফতুল্লায় অপরাধ জগতের সম্রাট যুবলীগ নেতা খালেক গ্রেপ্তার

নারায়ণগন্জ নিউজ ২৪ ডট কমঃ ফতুল্লায় কুতুবপুরের অপরাধ জগতের সম্রাট খালেক বাহিনীর প্রধান কুতুবপুর ইউনিয়ন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল খালেক মুন্সিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

বুধবার (২২ জুন) সন্ধ্যায় গ্রেপ্তারের বিষয়টি নিশ্চিত করে ফতুল্লা মডেল থানার ইনচার্জ (ওসি) শেখ রিজাউল হক দিপু জানান, একটি মারামারির ঘটনায় তাকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

জানা যায়, চাঁদার দাবীতে বুধবার (২২ জুন) বেলা ১১ টার দিকে আবুল হোসেন নামক এক সিমেন্ট ব্যাবসায়ীর উপর চাঁদার দাবিতে প্রকাশ্যে মা ও স্ত্রীর সামনে হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়েছে যুবলীগ নেতা খালেক বাহিনীর সন্ত্রাসীরা।

এ ঘটনায় মূল অভিযুক্ত খালেককে সন্ধ্যা সাতটার দিকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

এর আগে দুপুরে হামলার শিকার আহত সিমেন্ট ব্যবসায়ী আবুল হেসেন বাদী হয়ে কুতুবপুরের শীর্ষ সন্ত্রাসী খালেক, মালেকসহ আট জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ৫/৬ জনের বিরুদ্ধে ফতুল্লা মডেল থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

জানাযায়, কুতুবপুর ইউনিয়ন মুন্সিবাগ এলাকায় আবুল হোসেনের একটি সিমেন্ট বিক্রির দোকান আছে। একই এলাকায় যুবলীগ নেতা খালেক এবং মালেক দুজনেই সিমেন্টের ব্যবসা করে আসছে। নতুন করে আবুল এলাকায় দোকান দেয়ায় তার কাছে চাঁদা দাবি করে আসছিল এই সন্ত্রাসীরা।

এ নিয়ে বাদীকে প্রায় সময় হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিলো। এরই ধারাবাহিকতায় বেলা ১১ টার দিকে খালেক বাহিনীর প্রধান খালেক, আনোয়ার,  দেলোয়ার, বাদশা, হিব্রু, কয়লা সাহাবুদ্দিন, ফকির খোকনসহ অজ্ঞাতনামা আরো ৫/৬ জন সন্ত্রাসী হাতুড়ি, লোহার পাইপ, কাঠের টুকরো নিয়ে আবুলের সিমেন্টের দোকানে প্রবেশ করে চাঁদা দাবি করে। সে টাকা প্রদানে অস্বীকার করলে দোকান থেকে রাস্তায় টেনে এনে এলোপাতাড়ি মারধর সহ হাতুড়ি দিয়ে পিটিয়ে মারাত্মকভাবে আহত করে।

এ সময় আবুল বাঁচার জন্য আর্তনাত করলে তার মা, স্ত্রীসহ স্বজনেরা এগিয়ে আসলে হামলাকারীরা তাদেরকে পেটায়।

হামলার ঘটনাটি উৎসুক একজন মোবাইলে ধারন করে তা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে আপলোড করে দেন। মুহুর্তেই তা ভাইরাল হয়ে যায়।

ভিডিওতে দেখা যায় খালেক-মালেক বাহিনীর সন্ত্রাসীরা একটি দোকানের সামনের হাঁটু পানির ভিতরে এক যুবক কে মারধর করছে। যুবককে রক্ষার্থে বোরখা পরিহিত এক মহিলা এগিয়ে এলে তাকেও মারধর করে হামলাকারীরা।

Please follow and like us:

Related posts

Leave a Comment